উদ্যোক্তার গল্পদেশি উদ্যোক্তা

দেশিয় পণ্যের দ্বারা সমাদৃত হতে চান রনি আক্তার

1
roni

উদ্যোক্তা জার্নালের বিশেষ আয়োজন ‌‘উদ্যোক্তা গল্প’-র আজকের পর্বে, নিজের উদ্যোগ নিয়ে কথা বলেছেন রনি আক্তার। চলুন শুনি তার উদ্যোক্তা জীবনের গল্প।

আমি রনি আক্তার। নরসিংদী জেলার কান্দাইল নামক গ্রামে আমার জন্ম এবং সেখানেই বেড়ে ওঠা।

ছোট বেলাতে শাবানা ম্যামের ছবি দেখে ভেবেছিলাম বড় হয়ে আমিও ব্যবসা করবো। কারণ সবসময় দেখতাম ওনার ছবিতে ছোট করে কাজ শুরু করে বিশাল বড় কোম্পানির মালিক হয়ে যান। সবার কাছে আমার কথাটা হাস্যকর হলেও এটাই সত্যি।

আমি কাজ করছি দেশিয় পণ্য বাটিক নিয়ে। বাটিকের সবকিছু আমার কাছে পাওয়া যায়। আমার উদ্যোগের নাম রংধনু বুটিকস

আমার শুরুটা খুব সহজ ছিলোনা। মুলধন ছিলো মাত্র ৫,০০০ টাকা।

আমি মনে করি একজন উদ্যোক্তা হতে গেলে ধৈর্য, সাহস, সততা আর নিজের স্বপ্ন নিয়ে লেগে থাকা প্রয়োজন। বর্তমানে আমিসহ ৫ জন কর্মী আছে আমার প্রতিষ্ঠানে।rsltআমি মনে করি লেখাপড়া করার পাশাপাশি সবারই কিছু করা উচিত। তাহলে কাজের জন্য অন্যের পিছনে ছুটতে হবেনা। নিজের কাজের জায়গাটা নিজেই তৈরি করতে পারবে।

আমার প্রতিষ্ঠান নিয়ে তেমন কিছু বলার নেই। তবে দেশিয় পণ্য নিয়ে অনেক দূর যাবো এটা আমার স্বপ্ন এবং শত শত মানুষের কর্মসংস্হান সৃষ্টি করবো ইনশাআল্লাহ।

আমাদের দেশের প্রেক্ষাপট নারী উদ্যোক্তাদের জন্য অনেক কঠিন এবং চ্যালেঞ্জিং। তবে ধীরে ধীরে মানুষের মন মানসিকতা বদলাচ্ছে অনলাইনের যুগে এসে।

আরও পড়ুনঃ ব্যর্থতাকে শক্তিতে রূপান্তর করতে চায় ‘অপরাজিতা’

প্রতিবন্ধকতার অভিজ্ঞতা এই বিষয়টা সবসময় একটু কঠিন। তা সত্বেও সব বাধা পেরিয়ে সামনে এগিয়ে যাওয়ার নামই স্বপ্ন পূরণ করা।

সেল আলহামদুলিল্লাহ। আর কাষ্টমারকে সেরা সেবা দিতে পারছি বলেই আজ এতোটা পথ আসতে পেরেছি। স্মার্ট নারী উদ্যোক্তা হিসেবে সরকারি অনুদান পেয়েছি।

আমার প্রতিষ্ঠানের অর্জন হলো অনেক সম্মান এবং সুনাম। দেশে এবং দেশের বাহিরে অনেকে আমার মতো স্বপ্ন দেখেন।

আগামী ৫ বছর পর আমার প্রতিষ্ঠান একটা সনামধন্য দেশিয় পণ্যের ব্র্যান্ডে পরিনত হবে এমনটাই স্বপ্ন দেখি। দেশে এবং দেশের বাহিরে আমার শোরুম থাকবে, আর তৈরি করবো শত শত মানুষের কাজের জায়গা।

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ১২৪তম জন্মবার্ষিকী আজ

Previous article

বাংলাদেশ-চীন সম্পর্ক উন্নয়নে আরও মনোযোগ দেওয়া উচিত : প্রধানমন্ত্রী

Next article

You may also like

1 Comment

Leave a reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *